সিলেটে সেই ফাঁড়ির ‘নিরাপত্তায়’ সিআরটি

দৈনিক মাতৃভূমি ডেস্ক

দৈনিক মাতৃভূমি ডেস্ক

🕒 খবরটি প্রকাশিত হয়েছে: ৮:০৬ পূর্বাহ্ণ , অক্টোবর ১৭, ২০২০ | খবরটি পড়া হয়েছে 29 বার

সিলেট: সিলেটে পুলিশি নির্যাতনে রায়হান নামে এক যুবক নিহত হওয়ার ঘটনায় সিলেটে তীব্র হচ্ছে আন্দোলন। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠন ছাড়াও বিভিন্ন ইসলামি সংগঠনগুলো আন্দোলনে নেমেছে।

ফলে শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বিকেল থেকে সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানার আলোচিত বন্দরবাজার ফাঁড়ির নিরাপত্তায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশের বিশেষ টিম সিআরটি। এদিন সিআরটির আট সদস্যের একটি টিমকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সামনে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়।         পুলিশের একটি সূত্র জানায়, রায়হানকে ধরে এনে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে নির্যাতন করা হয়। এ কারণে বিক্ষুব্ধ জনতার ফাঁড়িতে হামলার আশঙ্কায় সিআরটি টিম মোতায়েন করা হয়।

 

সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মিঞা বলেন, রায়হানের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সামনে অনেকে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছেন। এসব কর্মসূচি থেকে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যাতে না ঘটে। এ জন্য ফাঁড়ির নিরাপত্তায় সিআরটি সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) বিকেলে নগরের আখালিয়ায় সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রায়হান হত্যার প্রতিবাদ কর্মসূচি থেকে পুলিশকে ধাওয়া করেন আন্দোলনকারীরা।

 

গত রোববার (১১ অক্টোবর) ভোররাতে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন করায় অসুস্থ হয়ে পড়েন ছিনতাইকারী সন্দেহে আটক রায়হান। এ অবস্থায় তাকে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর আকবরসহ চার পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করা হয়। ঘটনার পর রোববার থেকে আকবর পলাতক রয়েছেন।

 

মামলাটি পুলিশ সদর দফতরের নির্দেশ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) স্থানান্তর  করা হয়। তদন্ত ভার পাওয়ার পর পিবিআইর টিম ঘটনাস্থল বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ি, নগরের কাস্টঘর ও নিহতের বাড়ি পরিদর্শন করে। বৃহস্পতিবার মরদেহ কবর থেকে তুলে ফের ময়নাতদন্ত করা হয়। রায়হান হত্যার ঘটনায় এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ জড়িতদের গ্রেফতার  ও ফাঁসির দাবিতে জোরদার হচ্ছে আন্দোলন। প্রতিদিন সিলেট নগরের বিভিন্ন স্থানে সভা-সমাবেশ, মানববন্ধন এবং রাস্তা অবরোধ করেছেন বিক্ষুব্ধ জনতা।

টপ